Also read in

শেষ রক্ষা হল না, গ্রিন করিডোর করে গুয়াহাটিতে নিয়ে যাওয়া রোগী মনজুর আহমেদ মৃত্যুর কাছে হার মানলেন

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অজন্তা ব্রিকস-এর স্বত্বাধিকারী মনজুর আহমেদ লস্কর শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হার মানলেন। তাকে গত ৫ জুন শিলচর থেকে গ্রিন করিডোর করে কুম্ভীরগ্রাম বিমানবন্দরে এবং তারপর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে গুয়াহাটি নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

গুয়াহাটিতে তাকে এক্সেল হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছিল। পরের দিনই তার কোভিড রিপোর্ট নিগেটিভ আসে এবং তিনি সাধারণ আইসিইউতে ভেন্টিলেশনে ছিলেন। “তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছিল না তাই আমরা গুয়াহাটির অপর এক হসপিটাল ‘গুয়াহাটি হেল্থ কেয়ারে’ তাকে নিয়ে যাই। সেখানে আজ ভোর ৪-৩০ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।” জানালেন পরিবারের এক সদস্য।

মনজুর আহমেদ-এর নশ্বর দেহ কাছাড় জেলায় নিয়ে আসা হয়েছে, পরিবারের সদস্যরা অন্তিম সংস্কার করবেন। ” আমরা আজ সকালে রওনা হয়েছিলাম এবং শিলচর এসে পৌঁছেছি। পুরো পরিবার শোকে মুহ্যমান”, জানালেন পরিবারের সদস্য। “আমাদের বলা হয়েছিল যে, তার ফুসফুস মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যার জন্য অক্সিজেন সেচুরেশন লেভেল কম ছিল। এটা কোভিড পরবর্তী পরবর্তী জটিলতায় মৃত্যু।”

মনজুর আহমেদ লস্কর ধলাইয়ের হাওয়াইথাং এলাকার বাসিন্দা। তাঁর শারীরিক অবস্থা সঙ্কটজনক ছিল। তাই ডাক্তাররা তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে যাওয়ার পক্ষে ছিলেন না। তবে পরিবারের সদস্যরা মনে করেছিলেন গুয়াহাটিতে নিয়ে গেলে উন্নততর চিকিৎসার সুবিধা বেশি পাওয়া যাবে।

Comments are closed.