Barak Bulletin is a hyperlocal news publication which features latest updates, breaking news, interviews, feature stories and columns.
Also read in

আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত: ঘটনায় দোষী প্রত্যেককে গ্রেফতারের দাবি

আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ছাত্রদের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।গতকাল সন্ধ্যায় আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীর উপর হওয়া হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই বিক্ষোভ প্রদর্শন চলছে। এখানে উল্লেখ্য, গতকাল সংঘটিত এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে এবং দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি প্রদানের দাবি জানিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় ছাত্রছাত্রীরা শিলচর মেডিক্যাল কলেজের সামনেও রাস্তা অবরোধ করে।

এই ঘটনার ব্যাপারে আসাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জানান, দুই শিক্ষার্থী যারা দেশের ভিন্ন অঞ্চল থেকে এসেছেন এবং বাংলা বোঝেন না, বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেরার পথে তাদের লাঞ্ছনা করা হয়। তিনি আরো জানান, গতকাল শিলচর মেডিক্যাল কলেজ পয়েন্টের কাছে অ্যালকোহলে আসক্ত তিন ব্যক্তি শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়।

অন্য একজন শিক্ষার্থী জানান, “যখন একজন মহিলা ছাত্রী তার স্মার্টফোনটি দিয়ে পুরো ঘটনাটি রেকর্ড করার চেষ্টা করছিলেন তখন তার উপর আক্রমণ করা হয়। দুর্বৃত্তরা তাকে গালিগালাজ করে এবং ভীষণ ভাবে হয়রানি করে। এমন কি ইট পাথর দিয়ে তাকে মারতে যাচ্ছিল।”

এদিকে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক অরিত্র ধর ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আরও বলেছিলেন যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে যদি অপরাধীদের গ্রেফতার করা না হয় তবে এক বিশাল প্রতিবাদ শুরু হবে। তিনি এব্যাপারে বলেন, ঘটনার পরই ঘুঙ্গুর থানায় গিয়ে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল। তারা থানার পার্শ্ববর্তী রাস্তাও অবরোধ করে রেখেছিলেন। কিন্তু শিলচর সদর থানার ওসি দিতুমনি গোস্বামী আশ্বাস দিয়েছিলেন যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার করা হবে।

অন্যদিকে পুলিশ কর্মকর্তারা গতকাল সংঘটিত এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত একজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছেন। তবে ছাত্র ইউনিয়ন এই সীমিত সাফল্যে সন্তুষ্ট নয়। কারণ তাদের দাবি অনুযায়ী ঘটনায় জড়িত দোষী সবাইকেই গ্রেফতার করতে হবে।

এ ব্যাপারে ওসি বলেন, “এফআইআর-এ অভিযোগকারীরা কোন নাম বা সুনির্দিষ্ট বিবরণ উল্লেখ করতে পারেননি, যা অপরাধীদের শনাক্ত করার ক্ষেত্রে আমাদের সহায়তা করতে পারে।আমরা ইতিমধ্যেই একজনকে গ্রেফতার করেছি এবং চেষ্টা চালাচ্ছি যাতে করে তার মাধ্যমে আরও তিনজনকে ধরা যায়।”

সর্বশেষ প্রাপ্ত সংবাদে জানা গেছে, প্রদীপ সিং ছেত্রী, যিনি মেডিকেল পয়েন্টে গতকাল ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্ব পালনে ছিলেন, তাকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

Comments are closed.