Barak Bulletin is a hyperlocal news publication which features latest updates, breaking news, interviews, feature stories and columns.
Also read in

Lately the quality of journalism is deteriorating, says K G Suresh on National Press Day.

বর্তমানে সাংবাদিকতার মান নিম্নগামী হচ্ছে। সাংবাদিকদের মধ্যে সাধারণ মানুষের সমস্যা বিষয়ে ভাবনাচিন্তার প্রবণতা কমে এসেছে, সেই সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে পড়াশোনা করারও তেমন প্রবণতা আর নেই। আসাম সরকারের তথ্য ও জনসংযোগ বিভাগের উদ্যোগে এবং কাছাড় জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় আজ শিলচর বঙ্গভবনে অনুষ্ঠিত প্রথমবারের মতো রাজ্যভিত্তিক রাষ্ট্রীয় প্রেস দিবস- ২০১৯ উদযাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ কথা বললেন ভারতীয় গণসংযোগ প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন সঞ্চালক প্রধান তথা বিশিষ্ট সাংবাদিক কে জি সুরেশ। সংবাদ হওয়া উচিত তথ্যনির্ভর, জনমুখী এবং সংবাদ পরিবেশন করা উচিত নিরপেক্ষভাবে‌ বলে উল্লেখ করেন এই বিশিষ্ট সাংবাদিক। তিনি ‘রিপোর্টিং ইন্টারপ্রিটেশন: অ্যা জার্নি’ শীর্ষক আলোচনা চক্রে প্রধান বক্তা হিসেবে অংশগ্রহণ করে তার মূল্যবান বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানকে সমৃদ্ধ করেন।

অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়ালের মিডিয়া উপদেষ্টা ঋষীকেশ গোস্বামী বিশেষ অতিথি হিসাবে অংশগ্রহণ করেন। তাছাড়া প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কবীন্দ্র পুরকায়স্থ, আসাম সরকারের বন ও পরিবেশ, আবগারি ও মীন মন্ত্রী পরিমলশুক্লবৈদ্য, আসাম বিধানসভার উপাধ্যক্ষ মাননীয় আমিনুল হক লস্কর, শিলচর লোকসভা সমষ্টির সাংসদ ডঃ রাজদীপ রায়, শিলচর বিধানসভা সমষ্টির বিধায়ক দিলীপ কুমার পাল, উধারবন্দের বিধায়ক মিহির কান্তি সোম, বড়খলার বিধায়ক কিশোর নাথ, কাছাড়ের জেলাশাসক লায়া মাদ্দুরি প্রমুখ বিশিষ্ট অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন । প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রীর মিডিয়া উপদেষ্টা ঋষিকেশ গোস্বামী।মুখ্য অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ঋষিকেশ গোস্বামী সমাজকে সঠিক পথ নির্দেশ দেওয়াই হচ্ছে সাংবাদিকতার উদ্দেশ্য বলে উল্লেখ করেন।কর্তব্যরত অবস্থায় প্রাণ দেওয়া আসামের ৩২ জন সাংবাদিকদের পরিবারকে বর্তমান আসাম সরকার ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ প্রদান করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

শিলচরের সাংসদ রাজদীপ রায় তাঁর বক্তব্যে সাংবাদিকতাকে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে উল্লেখ করে সুস্থ সাংবাদিকতার প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এই অঞ্চলের সাংবাদিকতার মান বাড়াতে কর্মশালার আয়োজন করা হবে বলে তিনি জানান।

কাছাড়ের জেলা উপায়ুক্ত লায়া মাদ্দুরি সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের বিশেষ ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বক্তব্য রাখেন।গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করে তুলতে সাংবাদিকদের যোগদান অপরিহার্য। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, সাম্প্রদায়িক হিংসা নিরসনের ক্ষেত্র সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করার কথাও তিনি উল্লেখ করেন।

বরাক উপত্যকার ৬ জন সাংবাদিককে এ উপলক্ষে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। শান্তনু ঘোষ, অতীন দাস, সন্তোষ কুমার মজুমদার, হাবিবুর রহমান চৌধুরী, অশোক কুমার ভট্টাচার্য ও দেবদাস পুরকায়স্থকে জাতীয় প্রেস দিবস উপলক্ষে সংবর্ধিত করা হয়েছে।

Comments are closed.